লালপুরের পদ্মায় পলো দিয়ে মাছ ধরা উৎসব

 

ষ্টাফ রিপোর্টার: 
নাটোরের লালপুরে পদ্মার বুকে পলো দিয়ে মাছ ধরা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় প্রতি বছরই শীতের শেষে পদ্মায় জেগে থাকা ( দামুস ) নদীর হাঁটু পানিতে তাই শুরু হয়েছে পলো দিয়ে মাছ ধরার উৎসব।
বৃহস্পতিবার ( ৩ ফেব্রুয়ারি) লালপুরের কদমচিলান , চাঁদপুর , মোহরকয়া, মোমিনপুর, বড়াইগ্রামের বনপাড়া, রাজশাহীর বাঘার বাউসা সহ বিভিন্ন গ্রামের দেড়শতাধিক মানুষ দলবেঁধে নামেন বিলমাড়ীয়া বাজার সংলগ্ন পদ্মার ( দামুসে ) হাঁটু পানিতে। তাদের পলোর নিচে ধরা পড়ে নানা জাতের দেশীয় মাছ।

বাঁশ ও জাল দিয়ে ছোট বড় অসংখ্য পলো তৈরি করা হয়েছে। আগে থেকেই এলাকায় মাছ ধরার ঘোষণা দেওয়া। তাই এই এলাকার শৌখিন ও পেশাদার শিকারিরা মাছ ধরতে নদীতে নেমে পড়েন। এ এক গ্রামবাংলার ঐতিহ্য। বংশপরম্পরায় চলে আসছে এভাবে মাছ ধরা। আশপাশের বেশ কয়েকটি গ্রামের শত-শত মানুষ আসেন মাছ ধরার এ উৎসবে অংশ নিতে। উৎসুক গ্রামবাসী নদীর পাড়ে বসে দেখছেন এ উৎসব।

মাছ ধরার উৎসবে অংশ নেয়া স্থানীয় মোহরকয়া গ্রামের সাজদার রহমান বলেন, ‘আমি পেশায় একজন কৃষক। প্রতি বছরের শীতের এ সময়ে নদীর পানি কমে যায়। তখন আশপাশের গ্রামের মানুষরা একসাথে মিলে পলো দিয়ে মাছ ধরি। আজকেও এ মাছ ধরার উৎসবে প্রায় দু”শ জনের মতো অংশ নিয়েছে।
বিলমাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হক বলেন, শীতকালের শেষের দিকের প্রতিবছরই মাছ ধরার উৎসব হয়ে থাকে , এবারে শীত একটু বেশি হওয়ায় মাছের পরিমাণ কম ।তাছাড়াও মাছ ধরার জায়গা নদী শুকিয়ে যাওয়ার কারণে ছোট হয়ে গেছে।

শর্টলিংকঃ