বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট আখ মাড়াইয়ের আবেদন কৃষকের


স্টাফ রিপোর্টার :
বাঘায় উপজেলা নির্বাহি অফিসারের বারাবর কেমিক্যাল ছাড়া গুড় তৈরিতে আখ মাড়াইয়ের আবেদন করেছেন স্থানীয় কৃষকরা। উপজেলার উত্তর সোনাদহ,সোনাদহ,ভারতীপাড়া, রুস্তমপুর,পাঁচপাড়া,চকসিংগাসহ একাধিক গ্রামের কৃষকরা এই আবেদন করেন।
তারা আবেদনে উল্লেখ করেন, এসব এলাকার কৃষকরা কৃষির উপর নির্ভরশীল। ওইসব এলাকার অধিকাংশ কৃষক,জমিতে রোপণ করা আখ মৌসুমে মাড়াই করে গুড় তৈরি করে জীবন জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন আদিকাল থেকেই । পরে সেই জমিতে রবিশষ্য মৌসুমের কার্তিক-অগ্রায়ন মাসে গম,মসুর,খেসাড়ি,আলু,রসুন পেঁয়াজ,সরিষাসহ বিভিন্ন ফসলের চাষ করে থাকেন।
সোনাদহ এলাকার কৃষক নবাব আলী,ছইমুদ্দিন,লালচান,আজেরউদ্দিনসহ একাধিক কৃষক বলেন, এলাকার অর্থকারি ফসল আখ মাড়াই করতে না পারলে রবিশষ্য মৌসুমে ওইসব ফসলের আবাদ থেকে বঞ্চিত হবেন কৃষকরা। ফলে তারা ক্ষতির মগখে পড়বেন বলে আশংকা করছেন। যার কারনে আখ মাড়াই ও কেমিক্যাল মুক্ত গুড় তৈরিতে অনুমতি চাচ্ছেন তারা। অনুমতি না মিললে আখ উৎপাদন বাদ দিয়ে অন্য ফসল আবাদের দিকে ঝুঁকবেন বলে জানান তারা।
জানা গেছে,কিছু কুচক্রী মহল লালা (ঝোল গুড়) গুড়ের সাথে চিনিও ক্যামিকেল মিশিয়ে গুড় তৈরির কারণে ক্ষতির সন্মুখিন হচ্ছে প্রকৃত আখ চাষিরা। অপরদিকে চিনি কলের নিষেধাজ্ঞায় আখ মাড়াই থেকেও বঞ্চিত হচ্ছেন।
উপজেরা নির্বাহি অফিসার শারমিন আখতার কৃষকের আবেদনের বিষয় নিশ্চিত করে বলেন,এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অর্থাৎ চিনি কলের ডিজিএম এর সাথে কথা বলে জানানো হবে বলে জানান তিনি।

শর্টলিংকঃ