বাঘায় আ’লীগ ও বিএনপি’র দুই নেতা বহিস্কার


স্টাফ রিপোর্টার : 
রাজশাহীর বাঘায় পৃথকভাবে আ’লীগ ও বিএনপির দুই নেতাকে সাময়িকভাবে বহিস্কার করা হয়েছে। ওই দুই নেতা ও প্রার্থী হলেন,জেলা আ’লীগের সদস্য আক্কাস আলী ও পৌর বিএনপি’র সভাপতি কামাল হোসেন।
দলীয় সূত্রে জানা গেছে,আগামী ২৯ ডিসেম্বর বাঘা পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্ত উপক্ষো করে মেয়র পদে দুই নেতা প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন। এই অভিযোগে তাদের দল থেকে সাময়িকভাবে বহিস্কার করা হয়েছে।
আরও জানা যায়,২১ ডিসেম্বর বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু স্বাক্ষরিত দলীয় প্যাডে বাঘা পৌর বিএনপি’র সভাপতি কামাল হোসেন দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থি কর্মকান্ডে জড়িত থাকায় সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে দলের প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পদ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।


এ বিষয়ে বাঘা জেলা বিএনপি’র আহবায়ক আবু সাঈদ চাঁদ বলেন,বর্তমান সরকারের অধীনে বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেনা মর্মে সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে।অথচ বাঘা পৌর বিএনপি’র সভাপতি কামাল হোসেন দলীয় সিন্ধান্ত উপেক্ষা করে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন। বিষয়টি কেন্দ্রীয় কমিটিকে অবগত করা হলে কেন্দ্রীয়ভাবে তাকে বহিস্কার করা হয়েছে।
অপর দিকে রাজশাহী জেলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াদুদ দারা এক যুক্ত বিবৃতিতে জেলা কমিটির সদস্য আক্কাছ আলী দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ এবং স্থানীয় সরকার নির্বাচন জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সিন্ধান্ত অমান্য করে আ’লীগের দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করেছেন। যার কারণে দলীয় গঠনতন্ত্রের ৪৭ (১১) ধারা মোতাবেক সকল পদ থেকে তাকে বহিস্কার করার সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এছাড়া তার সাথে কেউ জড়িত থাকলে তাকেও তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জেলা আ’লীগের দপ্তর সম্পাদক প্রদ্যুৎ কুমার সরকার স্বাক্ষরিত দলীয় প্যাডে ২১ ডিসেম্বর এ বিষয়ে অবগত করেন।
এ বিষয়ে উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল বলেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া (নৌকা) প্রতিকের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় ও দলের গঠনতন্ত্র অমান্য করায় আক্কাছ আলীকে আ’লীগের সকল পদ থেকে তাকে স্থায়ীভাবে অব্যাহতি দেয়ার জন্য জেলা কমিটির মাধ্যমে কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে সুপারিশ প্রেরণ করা হয়েছে। তবে স্থানীয়ভাবে তাকে বহিস্কার করা হয়েছে।

শর্টলিংকঃ