বাগাতিপাড়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থী খুন! 

কামাল মৃধা:
নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার নাটোর সদর -বাগাতিপাড়া সীমান্তবর্তী বাগাতিপাড়া কালারা ব্রিজ এলাকায় এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযেগ করেছেন স্বজনরা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পুলিশ।

নিহত জাহিদুল ইসলাম জাহিদ(১৭) ওই উপজেলার কাকফো এলাকার রাশেদুল ইসলাম রাশুর ছেলে। তিনি সাধুপাড়া স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী।

নিহতর বোন ও মা কান্নাজড়িত কন্ঠে জানান, জাহিদ তার নানীর বাড়ি একই উপজেলার দয়ারামপুরের কাঠালবাড়ি ডালিপট্টিতে থাকতো। পরিচিত একজনকে রক্ত দেয়ার কথা বলে শনিবার সে তার নানীবাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফেরেনী৷ রবিবার সকালে পথচারীরা ওই মরদেহ দেখতে পায়। খবর পেয়ে তারা মরদেহটি সনাক্ত করেন।

এক প্রশ্নের জবাবে নিহতর বোন স্থানীয় জিগরী উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী দাবী করেন, প্রায় তিন বছর আগে স্কুলে যাওয়ার পথে স্কুলের পাশের বাড়ির এক মেয়ের জাহিদের সাথে পরিচয় হয়। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। জাহিদ ওই মেয়েকে বোরখা, থ্রি পিছ এমনকি একটি ছাগলও কিনে দিয়েছে। মেয়ের মাও বিষয়টা জানে এবং জাহিদকে উৎসাহ দেয় এই বলে যে, যা কিছু করো আর দাও সব তোমাদেরই থাকবে।

সম্প্রতি ওই মেয়ের মা জাহিদকে বলে, তার মেয়ের নামে মাসিক ৫শ’ টাকার একটি ডিপিএস করে দিতে। কিন্তু নিজ আয় না থাকায় ওই টাকা দিতে পারবেনা বলায় তাদের জাহিদের সাথে মনোমালিন্য চলছিল।

জাহিদের দাদী জানান, তিনি নিজেও জাহিদকে বুঝিয়েছেন ওই মেয়েকে ভুলে যেতে। এক পর্যায়ে জাহিদ এসএসসি পরূীক্ষার পর দেশের বাইরে যেতে চেয়েছিল।

তাদের দাবী, ওই মনোমালিন্য থেকে রাগ ও শত্রুতা ভাবাপন্ন হয়ে তারা জাহিদকে খুন করতে বা করাতে পারে।

বাগাতিপাড়া থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম মরদেহ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতর নাক-মুখ দিয়ে রক্ত বের হতে দেখা গেছে। এতে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে,তাকে হত্যা করা হয়েছে। বিষয়টির তদন্ত শেষে বিস্তারিত বলা যাবে।

শর্টলিংকঃ