প্রত্যেককে দায় নিতে হবে; এডভোকেট সুলতানা কামাল

নাটোর সংবাদদাতা :
সাবেক তত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্কৃতি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এডভোকেট সুলতানা কামাল বলেছেন,দায় এড়ানো বা নিজ অর্পিত দায়িত্ব পালন না করার সংস্কৃতির কারণেই দেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটছে। নিশ্চিত করা যাচ্ছেনা মানুষের অধিকার, নিরাপত্তা, শান্তি। রোধ হচ্ছেনা অপরাধ। তাই এ থেকে মুক্তি পাওয়ার একটাই উপায়। আর তা হল প্রত্যেককে নিজ অর্পিত বা বিধিবদ্ধ দায় নিতে হবে। পালন করতে হবে নিজ দায়িত্ব।
তিনি বুধবার রাতে নাটোর শহরের কাপুড়িয়াপট্টি এলাকায় ভিক্টোরিয়া পাবলিক লাইব্রেরী অডিটোরিয়মে মানবাধিকার সংস্কৃতি ফাউন্ডেশন, জেলা কমিটির ত্রৈমাসিক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
স্থানীয় নিডা সোসাইটি এবং জেলা মানবাধিকার ডিফেন্ডার নেটওয়ার্ক ওই সভার আয়োজন করে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সুলতানা কামাল দাবী করেন,বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে অনেক উন্নয়ন করেছেন। রাস্তা-ঘাট,ব্রিজ-কালভার্ট,সড়ক-মহাসড়ক, সুউচ্চ ভবনসহ নানা ক্ষেত্রে ছোঁয়া লেগেছে এই উন্নয়নের। কেননা শেখ হাসিনা চান, তার নেতৃত্বে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ এগিয়ে যাক। কিন্তু তাঁর সদিচ্ছা আর আন্তরিকতা থাকলেও এটাই সত্য যে, দেশের দৃশ্যত উন্নয়নের বিপরীতে অবনতি ঘটেছে মানুষের নৈতিকতা,সম্মানবোধ,মানুষের প্রতি প্রকৃত ভালোবাসায়। সংকুচিত হয়েছে প্রকৃত শিষ্ঠাচারসহ সকল মানবিক গুণাবলী অর্জনেরে পথ।
তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন,
সম্প্রতি নাটোরে এসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। দেশে বেড়েছে ধর্ষণ। অহরহ ঘটছে মানবাধিকার লঙ্ঘন। বেড়েছে রাজনৈতিক, সামাজিক হামলা আর মামলা। উর্ধমুখি প্রায় সকল নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম যা সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। মানুষের নেই কোন সামাজিক মর্যাদা,নিরাপত্তা। সঙ্গতি নেই মানুষের আয়ের সাথে দ্রব্যমূল্যর মাধ্যমে ব্যায়ের। ফলে নাভিশ্বাস উঠেছে মানবিকতার। এরমধ্য দিয়ে লুটেরা, অসৎ ব্যাবসায়ী, রাজনৈতিক অসাধু আর সুযোগসন্ধানী দের টাকার পাহাড় হলেও বিপরীতকরণ্রমে অশান্তিতে দিনাতিপাত করছে লাখ লাখ সাধারণ শান্তিপ্রিয় মানুষ।
এ অবস্থার কারণ হিসেবে তিনি রাষ্ট্র্র ও সরকারের বিভিন্ন সেক্টরে দায়িত্বরতদের দায়িত্ব পালন না করা আর দায়িত্ব এড়িয়ে যাওয়ার মানসিকতাকে
দায়ি করেন। কিন্তু গণতান্ত্রিক বাংলাদেশে সাংবিধানিক ও বিধিবদ্ধ দায় এড়ানোর কোন সুযোগ নেই দাবী করে দেশের চলমান সকল সংকট থেকে উত্তোরণে
প্রত্যেককে নিজ অর্পিত দায়িত্ব পালনের আহবান জানান তিনি।

জেলা মানবাধিকার ডিফেন্ডার নেটওয়ার্কের আহবায়ক প্রভাতি বসাকের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন,জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাহানারা বিউটি,  নাটোর প্রেসক্লাব সভাপতি ফারাজি আহমেদ রফিক বাবান, শিক্ষাবিদ অলোক মৈত্র, সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব খগেন্দ্র্রনাথ রায়, সমাজসেবক ও সনাক সদস্য আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

শর্টলিংকঃ