নাটোরে ৮ জন নরপশু মিলে গণধর্ষণ” আটক ৫

নলডাঙ্গা(নাটোর)প্রতিনিধিঃ নাটোরে ৮ নরপশু মিলে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেছে। এ ঘটনায় ৫ সন্দেহভাজন কে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল ১৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার রাতে নাটোরের ছাতনী ইউনিয়নের ছাতনী এলাকায় এই ঘটে।

নাটোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনসুর আহমদ জানান, গতকাল ১৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার পরিবারের উপর অভিমান করে বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে ছাতনী ভাটপাড়া খালার বাড়ির উদ্দেশ্যে নলডাঙ্গার মাধনগর থেকে বের হয়ে পায়ে হেঁটেই ছাতনী দিয়ারে পৌঁছে। সন্ধ্যে সোয়া সাতটার দিকে সেখানে পৌঁছালে মাঝদিঘা গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে শহিদুল ইসলাম(২২) ব্যক্তির সাথে পরিচয় হয়। শহিদুল ইসলাম মেয়েটিকে ভুলভাল বুঝিয়ে তার খালার বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে। পরে ভাটপাড়ার উদ্দেশ্যে পায়ে হেঁটে রওনা করেন।

পথিমধ্যেই ওই এলাকার বখাটে ছেলেদের নজরে পড়লে ছেলেটি ও মেয়েটির পিছু নিয়ে ভাটপাড়া শ্মশানঘাটের মাঝামাঝি এলাকায় গেলে ছেলেটির কাছ থেকে ছাতনি দিয়ার এলাকার এরশাদ আলীর ছেলে ঔ শরিফুল ইসলাম(২২), আবির মন্ডলেরর ছেলে লিটন (২৩) মিনু শেখের ছেলে নয়ন শেখ (২৫), দিলদারের ছেলে রাজু (২৫), মোকসেদ আলীর ছেলে কাজল (২৫) আসতুল (৩৮), আমিনুর রহমানকে কেড়ে নিয়ে বিলের মধ্যে লেবু বাগানে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করেন।

ভিকটিমের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ রাতেই অভিযান পরিচালনা করে গনধর্ষণকারীদের মধ্যে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার ও ভিকটিম উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন। ধর্ষণকারীদের মধ্যে এখনও তিনজন পলাতক রয়েছেন।

 

 

শর্টলিংকঃ