অনুপ্রেরণার অপর নাম বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ জননেতা মমতাজ উদ্দিন


জামিরুল ইসলাম  ঃ  যখনই ৬ ই জুন  নাম আসে , ঠিক তখনই বুকের মধ্যে কেঁপে উঠে , কান্না বের হয়ে আসে , আগামীকাল রক্তাক্ত ৬ ই জুন । ২০০৩ সালের আজকের এই তারিখে নাটোর-১ ,  ( লালপুর-বাগাতিপাড়া ) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য , লালপুর-বাগাতিপাড়ার মাটি ও মানুষের নেতা , বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ জননেতা মমতাজ উদ্দিনকে রাতের অন্ধকারে নিমর্মভাবে কুপিয়ে হত্যা করে কতিপয় কুলাঙ্গাররা। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙ্গালী জাতির কাছে বিশাল হৃদয়ের ও সর্বজন শ্রদ্ধেয় নেতা হিসেবে সমাদৃত । ঠিক তেমনি লালপুর-বাগাতিপাড়া বাসীদের নয়নের মনি ছিলেন শহীদ জননেতা মমতাজ উদ্দিন । আমি প্রিয় এ নেতার স্নেহ মাখা ভালোবাসা পেয়েছি । আমার বিশ্বাস উনার সংস্পর্শ পাওয়া কোন ব্যক্তি উনার প্রশংসা না করে পারবেন না । দল-মত নির্বিশেষে সকল মানুষের কাছে উনি পরিচিত ছিলেন সৎ , মিষ্টভাষী , সদালাপী ও একজন যোগ্য নের্তৃত্ব হিসেবে । প্রিয় এ নেতার আদেশ ও মতামত গুলো আমাদের এগিয়ে যাবার অনুপ্রেরণা জোগায় । উনার আদর্শ ও নীতি-নৈতিকতাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে আমরা সামনের দিকে এগিয়ে চলার সাহস পায়।
যার রক্তে তিল তিল করে গড়ে ওঠা এই আমাদের আজকের লালপুর বাগাতিপাড়া।
কিভাবে ভুলবো তোমার রক্তের দাগ?
তোমাকে হারিয়ে আজ আমরা সর্বহারা ,
তোমার কাছে আমাদের অজস্র ঋণ” তোমাকে আজও ভুলিনী আর ভুলবো না কোন দিন।
স্বাধীনতা পরবর্তী সময় থেকে অদ্যাবধি পর্যন্ত যে সকল নেতৃবৃন্দ লালপুর-বাগাতিপাড়ায় নের্তৃত্ব দিয়ে চলেছেন সকলের নেতা হবার পেছনে রয়েছে এ জনপ্রিয় নেতার প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ অবদান।
আজ কৃতি এ নেতার ১৮তম শাহাদাত বার্ষিকী পালিত হচ্ছে। দিনটি উপলক্ষ্যে প্রতি বার স্মরন সভা, পোষ্টারিং, মাইকিং, দোয়া মাহফিল, কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা সহ নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে আয়োজন করা হয়। এ সকল স্মরন সভায় হাজার-হাজার জনতার অংশগ্রহনে কেন্দ্রীয় নের্তৃবৃন্দ ও জেলা আওয়ামীলীগের নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত থাকতেন। এ এলাকার প্রতিটি গ্রাম-মহল্লা থেকে শত শত মানুষের উপস্থিতিতে স্মরন সভা অনুষ্ঠিত হতো। তবে এবারের আয়োজনটি এ এলাকার মমতাজ প্রেমীদের মনটাকে কিছুটা হলেও আশাহত করেছে। শুধুমাত্র পুষ্পস্তবক ও দোয়ার মধ্য দিয়ে প্রিয় এ নেতাকে স্মরন করা হবে । কোন ধরনের পোষ্টারিং চোখে পড়ে নি। স্মরন সভার আয়োজন না করায় বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ও বিপুল সংখ্যক মমতাজ প্রেমীদের উপস্থিতি ও সেখানে দেখা যাবে না।
আসুন সবাই মিলে প্রিয় এ নেতার নের্তৃত্ব গুন, এ এলাকার উন্নয়ন-অগ্রগতিতে উনার অবদান- সর্বোপরি একজন সৎ মানুষ হিসেবে উনার রুহের মাগফেরাত কামনা করি। তোমার মৃত্যুতে আমরা শোকাহত, তুমি অমর” তুমি আমাদের মাঝেই বেচে রবে চিরদিন। তাই আগামীতে পূর্বের ন্যায় স্মরন সৌধে পুষ্পস্তবক অর্পন, কবর জিয়ারত, স্মরন সভা ও দোয়া মাহফিল সহ নানা কর্মসূচির মাধ্যমে প্রিয় এ নেতাকে স্মরন করার ক্ষেত্রে উনার পরিবার, আত্মীয় স্বজনরা ও আওয়ামীলীগ নের্তৃবৃন্দ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করে হাজারো মমতাজ প্রেমীদের মনের ভালোবাসা ব্যক্ত করার ও শ্রদ্ধা অর্পনের সুযোগ করে দিবেন এ আশা আমাদের।
প্রিয় এ নেতাকে আল্লাহ্ জান্নাতবাসী করুন এ দোয়া করি।

শর্টলিংকঃ